টেকনোলজি

কি কিনবেন কেন কিনবেন

কোনো কিছু কেনার আগে আমাদের অবশ্যই ঠিক করা দরকার কোন জিনিটি কিনব এবং কি কাজের জন্য কিনব। অর্থাৎ আমাদের প্রায়োজন অনুযায়ী জিনিসটি সঠিক হবে কি-না। কেনার পর জিনিসটি সঠিক না হলে আমাদের অর্থের অপচয় হতে পারে। কাজের বিঘ্ন হতে পারে। তাই প্রথমেই আমাদের ঠিক করা দরকার কি কিনব কেন কিনব। এখানে কয়েকটি জিনিস নিয়ে আলোচনা করা হল। যেমন ডেক্সটপ ও ল্যাপটপের বেলায় যা ঘটে। ল্যাপটপ কিনবেন না ডেস্কটপ কিনবেন। আবার এসএসডি (SSD) কিনবেন না হার্ডডিস্ক (HDD) কিনবেন এভাবে এলইডি (LED) না এলসিডি (LED) ইত্যাদি।

২০০০ এর দশকের শেষের দিকে, যখন আপনি একটি নতুন কম্পিউটার কিনেছেন। তখন হার্ডডিস্ক ছিল একমাত্র স্টোরেজ ডিভাইস। এর গতি ছিল প্রায় প্রতি মিনিটে ৫৪০০ বা ৭২০০ ঘূর্ণনের মধ্যে। অর্থাৎ ঘুর্ণনের ওপর এর গতি নির্ভর করত। বর্তমানে এসএসডি হার্ডডিস্কের বিকল্প। এসএসডিগুলি দ্রুত গতির, নির্ভরযোগ্য, টেকসই এবং কম বিদ্যুত খরচ করে। তবে এসএসডি’র দাম তুলনামূলক বেশি।



আরও পড়ুন: LCD কি? LCD বনাম LED


ডেক্সটপ ও ল্যাপটপ

প্রথমে আলোচনা করা যাক্ ডেক্সটপ কম্পিউটার কিনবেন নাকি ল্যাপটপ কম্পিউটার কিনবেন। এখন প্রশ্ন হলো আপনি কি কাজের জন্য পিসি ব্যবহার করবেন। যদি আপনি গ্রাফিক্স নিয়ে কাজ করেন তবে অবশ্যই ডেক্সটপ কম্পিউটার কিনবেন। এছড়া ওয়েব ডিজাইন, ভিডিও এডিটিং ইত্যাদি কাজের জন্য ডেস্কটপ ভাল হবে। তাছাড়া গেইম খেলার জন্য বিশেষ ধরনের ডেক্সটপ আছে। ,

অপরদিকে অপনার যদি সব সময় কম্পিউটার প্রয়োজন হয় অথবা বহন করার প্রয়োজন হয় তবে ল্যাপটপের বিকল্প নেই। অফিস আদালত, শিক্ষাক্ষেত্রে, ব্যবস্যা-বাণিজ্যে, ভিজিও কনফারেন্সিং-এর ল্যাপটপ বহুল ব্যবহার করা হয়।

কাজেই আপনি কেনার আগে আপনি কোনটি কিনবেন সেটি নির্ধারণ করে নিলে সময়, শ্রম ও অর্থের সাশ্রয় হবে।


আরও পড়ুন: SSD-র সঠিক ব্যবহার


এসএসডি ও হার্ডডিস্ক

এসএসডি ও হার্ডডিস্ক দুটিই কম্পিউটার ডাটা সংরক্ষণের জন্য ব্যবহার হয়। এগুলো কম্পিউটারের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ ডিভাইস। আকার, ধারণক্ষমতা, গতি ইত্যাদি দিকে এ দুটির মধ্যে অনেক পার্থক্য আছে। কাজেই এর দুটি ব্যবহারের দিক থেকেও কিছু ভিন্নতা আছে।

দুটির মধ্যে গতির বিষয়টি খুব গুরুত্বপূর্ণ। তাই এটি নিয়ে আলোচনা করি। এসএসডি’র প্রধান আকর্ষণ হলো তার গতি। এটি হার্ডডিস্কের চেয়ে প্রায় ১০ বেশি গতিসম্পন্ন। এসএসডির এই সুবিধাটি কাজে লাগিয়ে আপনার পিসির গতিও বাড়াতে পারেন। এজন্য অপারেটিং সিস্টেম এসএসডি-তে ইন্সটল করতে পারেন। অর্থাৎ আপনার পিসির অপারেটিং সিস্টেমের জন্য এসএসডি ব্যবহার করবেন। সেক্ষেত্রে একটি কম ধারণ ক্ষমতার (১২০/১২৮ জিবি) এসএসডি ব্যবহার করতে পারেন।
এসএসডির দাম তুলনামুলক হার্ডডিস্কের চেয়ে অনেক বেশি এবং ধারণক্ষমতাও কম। তাই ডাটা সংরক্ষনণর জন্য হার্ডডিস্ক ব্যবহার করবেন।

ল্যাপটপের জন্য এসএসডিই ভাল। কারণ এসএসডির হালকা, আকারে ছোট, বিশেষ করে এম ডট ২।

আর ক্যামেরার লাইভ স্ট্রিমিং-এর জন্য সার্ভিলেন্স হার্ডডিস্ক প্রয়োজন হয়। এটি একটি বিশেষ হার্ডডিস্ক যা সার্বক্ষনিক রেকডিংয়ের জন্য বিশেষ প্রযুক্তিতে তৈরি।

এছাড়া পুরানো মডেলের পিসিতে এসএসডি (SSD) ব্যবহার করে গতি বাড়াতে পারেন।

এইচডিডি’র গতি এসএসডি’র তুলনায় কম হলেও কম দামে বেশি স্টোরেজ পাওয়া যায়। তাই অল্প বাজেট হলে হার্ডডিস্ক (এইচডিডি) ব্যবহার করা ভাল ।

এখন প্রশ্ন হল এসএসডি (SSD) কিনবেন না এইচডিডি (HDD) কিনবেন?

এক কথায় SSD এবং HDD-এর মধ্যে পছন্দ নির্ভর করে আপনার নির্দিষ্ট চাহিদা, বাজেট এবং গতি এবং আপনার প্রয়োজনীতার উপর।

SSD, HDD-এর তুলনায় ব্যয়বহুল। অপর দিকে HDD কম খরচে বেশি স্টোরেজ কিন্তু ধীর গতির। কাজেই আপনার বেশি গতরি প্রয়োজনে SSD এবং বেশি স্টোরেজের জন্য HDD ব্যবহার করতে পারে। অথবা এসএসডি ও এইচডিডি দুই ধরনের স্টোরেজেই ব্যবহার করতে পারেন।


আরও পড়ুন: নজরদারি হার্ডড্রাইভ


এলসিডি ও এলইডি

আমরা মনিটর ও টিভি কেনার ক্ষেত্রে প্রায়ই সমস্যায় পড়ে যাই। LCD না LED কিনব। এবার আমরা জেনে নিই LCD এবং LED আসলে কী।

অনেকে LCD ও LED কে সম্পূর্ণ আলাদা টেকনোলজির মনিটর বলে মনে করেন। মুলত LCD হলো মনিটর আর LED হলো আলোর উৎস। বর্তমানে এলসিডি মনিটরের উন্নতমানের আলোর উৎস Light-emitting diode (LED) ব্যবহার করা হয়। LED সম্বলিত মনিটরগুলিতে সাধারণত ইমেজের গুণগত মান ভাল হয়। তছাড়া LED ব্যবহারে তুলনামূলক অনেক কম বিদ্যুৎ খরচ হয়।

আগে LCD-তে পুরাতন টেকনোলজির Cold Cathode Fluorescent Lamp (CCFL) ব্যবহার করা হতো। এর ছবির মান ততটা ভাল ছিল না। পরবর্তীতে CCFL ব্যাকলাইট বাদ দিয়ে LED ব্যাকলাইট ব্যবহার করা হয়।

তাই মনিটর বা টিভি উভয় ক্ষেত্রেই LED টেকনোলজি দেখে কেনা উচিত।

সূত্র : ইন্টারনেট ও বিভিন্ন নিউজ মিডিয়া।


Share on Social Media