লাইফ স্টাইল

মাটি ছাড়া ধনেপাতা চাষ করবেন কিভাবে


আমরা সাধারণত মশলাদার খাবার পছন্দ করি। কিছু কিছু মশলা না হলেই চলে না। যেমন ধনে পাতা। মুড়ি ভর্তা থেকে শুরু করে সকল প্রকার রান্না-বান্নায়। এমনকি সবজি বা সালাদ হিসেবেও ব্যবহার হয় ধনেপাতা। আবার ধনেপাতা ভর্তা সুস্বাদু ও পুষ্টিকর।

সারা বছর বাসায় বসে মাটি ছাড়া ধনেপাতা চাষ করুন

তবে ধনে পাতা শীতকালে পাওয়া যায়। তাই এর জন্য  শীতকাল পর্যন্ত অপ্কেষা করতে হয়। তবে বর্তমানে এটি সব ঋতুতেই পাওয়া যায়। যদিও অন্য ঋতুকে  এটি চাষ করলে ভালো ফল দেয় না।  আসলে বর্তমান সময়ে বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে বারোমাসি ধনেপাতা চাষ করা সম্ভব। তাও আবার মাটি ছাড়া শুধু পানিতে। 

আসুন জেনে নেই কিভাবে মাটি ছাড়াই ধনেপাতা চাষ করা যায়। এর জন্য কয়েটি ধাপে কাজ করতে হবে। ধাপগুলো হলো-


ধাপএই চাষ পদ্ধতির জন্য প্রথমে দরকার হবে একটি বড় পাত্র (প্লাস্টিকের গামলা)। এই পাত্রটিতে পানি ভর্তি করা থাকবে। আরেকটি ছাকনা যুক্ত পাত্র অর্থাৎ এই পাত্রটিতে অনেকগুলো ছিদ্র থাকবে। ছিদ্রযু্ক্ত পাত্রটি এমন সাইজের হবে যেন বড় পাত্রের উপরে বসে এবং বড় পাত্রের ভিতরে কিছুটা ঢুকে যায। বর্তমানে এরকম ছিদ্রযুক্ত প্লাস্টিকের পাত্র পাওয়া যায়।


ধাপ দ্বিতীয় ধাপে বড় পত্রটিতে পানি ভার্তি করুন। ততটাই ভর্তি করুন যাতে ছিদ্রযুক্ত পাত্রটিকে বড় পাত্রের উপর বসিয়ে দিলে ছিদ্রযুক্ত পাত্রের তলা পানির লেভেলের সমান হয়।

ধাপএবার কিছু ধনেপাতার বীজ নিয়ে ২৪ ঘন্ট পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। এরপর বীজগুলো পানি থেকে ছেকে নিয়ে ছিদ্রযুক্ত পাত্রের উপর বিছিয়ে দিন। অর্থাৎ বীজ বপন করুন। এমনভাবে বিছাবেন যেন সবগুলো বীজ একটার গায়ে একটা লেগে থাকে। কিন্তু একটার উপরে না থাকে।


ধাপএকটি সাদা কাপড় পানিতে ভিজিয়ে বীজের উপর বিছিয়ে বীজগুলোকে ভালোভাবে ঢেকে রাখুন। কাপড় শুকিয়ে গেলে সেটিকে আবার ভিজিয়ে রাখুন।

ধাপচার থেকে পাঁচ দিন অপেক্ষা করুন। এরপরে বীজ থেকে অঙ্গুর বের হবে। আস্তে আস্তে চারায় রূপ নেবে। তখন এগুলোর উপর থেকে কাপড় সরিয়ে নিতে হবে।

ধাপএবার নিচের পাত্রটি সহ এমন একটি স্থানে রাখুন যেখানে সরাসরি সূর্যের আলো পড়ে না কিন্তু আলো-বাতাস পাওয়া যায়। আস্তে আস্তে চারা বড় হবে। ২০ থেকে ৩০ দিনের মধ্যে ধনেপাতা গুলো খাওয়ার উপযোগী হয়ে উঠবে। খেয়াল রাখুন পানি শুকিয়ে গেলে পানি দিবেন।

এভাবে চাষ করুন। সব ঋতুতেই ধনেপাতা পাবেন। অর্থাৎ ১২ মাসই ধনেপাতার স্বাদ নিতে পারবেন। তবে ভালো ফল পেতে অবশ্যই ধৈর্য ধরে ধাপগুলো অনুসরণ করতে হবে।

সূত্র : ইন্টারনেট ও সংবাদ মিডিয়া

Share on Social Media