টেকনোলজি

SSD কি? SSD-র সঠিক ব্যবহার

দ্রুত গতি ও মেমোরি কম্পিউটারের অন্যতম দুটি বৈশিষ্ট্য। অর্থাৎ কম্পিউটার মানেই কত দ্রুত কাজ করতে পারে এবং কত বেশি ডাটা ধারণ করতে পারে। কম্পিউটারের গতি যে সকল ডিভাইসের ওপর নির্ভর করে তাদের মধ্যে একটি হল এসএসডি (SSD)। এসএসডি হার্ডডিস্কের মতো কম্পিউটারের দ্বিতীয় ধাপের একটি স্থায়ী মেমোরি।

এসএসডি কি?

SSD-এর পুরো নাম Solid State Drives । এটি বর্তমানে সবচেয়ে বেশি গতির ফ্ল্যাশ স্টোরেজ ডিভাইস। হার্ডডিক্সের চাইতে কিছুটা ছোট ও বেশ হালকা-পাতলা। সহজেই প্রতিস্থাপন করা যায়। কম বিদ্যুৎ খরচ হয়। তবে SSD-র আরও উন্নত সংস্করণ আছে, যেগুলো আরো ছোট এবং গতিশীল। একে Nonvolatile Memory Express (NVMe) M. 2 SSD বলে।

একসময় স্টোরেজ মানেই ছিল হার্ডডিস্ক (HDD)। তবে বর্তমানে হার্ডডিস্ককে পিছনে ফেলে স্থান দখল করে নিয়েছে এসএসডি। কারণ এসএসডি’র রিডি-রাইট গতি হার্ডডিস্কের চাইতে প্রায় ১০গুণ বেশি। তবে এর দাম তুলনামুলক বেশি হওয়ায় কারণে এটি ব্যবহারে অনেকে নিরুৎসাহিত হন।

এসএসডি (SSD) বনাম এইচডিডি (HDD)

এক কথায় SSD মানে সলিড-স্টেট ড্রাইভ। এটি এমন এক ধরনের স্টোরেজ ডিভাইস যা ফ্ল্যাশ মেমরি ব্যবহার করে ডেটা ক্রমাগত সংরক্ষণ করে। প্রথাগত হার্ড ডিস্ক ড্রাইভ (HDDs) থেকে ভিন্ন যা স্পিনিং ডিস্ক এবং যান্ত্রিক উপাদান ব্যবহার করে, SSD এর কোন চলমান অংশ নেই এবং এটি সলিড-স্টেট প্রযুক্তির উপর ভিত্তি করে।

এইচডিডির তুলনায় এসএসডি তাদের দ্রুত ডেটা অ্যাক্সেস এবং স্থানান্তর গতির জন্য পরিচিত। ডেটা রিড এবং রাইটের ক্ষেত্রে উচ্চ গতিসম্পন্ন হয়। ফলে এটি কম্পিউটার এবং অন্যান্য ডিভাইসে ব্যবহারের জন্য আগ্রহী করে তোলে।

SSD গুলি বিভিন্ন ফর্ম ফ্যাক্টরগুলিতে পাওয়া যায়, যার মধ্যে রয়েছে 2.5-ইঞ্চি ড্রাইভ যা ল্যাপটপ এবং ডেস্কটপ কম্পিউটারগুলিতে অভ্যন্তরীণ স্টোরেজ হিসাবে ব্যবহার করা যেতে পারে, সেইসাথে ছোট M.2 ড্রাইভগুলি যা সাধারণত আল্ট্রাবুক এবং কমপ্যাক্ট সিস্টেমে পাওয়া যায়। এগুলি বহিরাগত স্টোরেজেও ব্যবহৃত হয়, যেমন পোর্টেবল এসএসডি বা এসএসডি-ভিত্তিক বাহ্যিক হার্ড ড্রাইভ।

সামগ্রিকভাবে, এসএসডিগুলি প্রথাগত HDD-এর তুলনায় দ্রুত কর্মক্ষমতা, কম বিদ্যুত খরচ, কম শব্দ এবং কম তাপ উৎপাদনসহ বেশ কয়েকটি সুবিধা প্রদান করে। যাইহোক, এইচডিডির তুলনায় এসএসডিগুলি সাধারণত প্রতি ইউনিট স্টোরেজের চেয়ে বেশি ব্যয়বহুল, যা এখনও বৃহৎ-ক্ষমতার স্টোরেজ প্রয়োজনীয়তার ক্ষেত্রে এইচডিডিকেই বেছে নিতে হয়।

কখন এসএসডি ব্যবহার করবেন?

সাধারণত কম্পিউটারের অপারেটিং সিস্টেম (ওএস) হার্ডডিস্ক থেকে রান করে। তাই হার্ডডিস্কের গতির ওপরও কম্পিউটারের গতি নির্ভর করে। এক্ষেত্রে হার্ডডিস্কের গতি যদি বাড়ানো যায় তবে কম্পিউটারের গতি কিছুটা হলেও বাড়বে।

তবে নির্মাতাগণ বসে থাকেননি। তারা হার্ডডিস্কের পরিবর্তে নিয়ে এসেছেন এসএসডি। এটি এখন হার্ডডিস্কের জায়গা পাকাপোক্তভাবে দখল করে আছে। যদিও এটি ব্যবহারের জন্য বেশি টাকা ব্যয় করতে হয়। তবে কম্পিউটারের গতির দিক চিন্তা করে অনেকেই এসএসডি ব্যবহার করে।

অপরদিকে হার্ডডিস্ক তরিৎ-চুম্বকীয় পদ্ধতিতে ম্যাগনেটিক সারফেসে ডাটা সংরক্ষণ করে। এর ডাটা সংরক্ষণ পদ্ধতি সম্পূর্ণ টেকনিক্যাল। এজন্য প্ল্যাটার, রিড-রাইট হেড, মটর ইত্যাদি যন্ত্রাংশের ওপর নির্ভর করতে হয়। যার কোনো একটি খারাপ হলে হার্ডডিস্ক সঠিক ভাবে কাজ করে না। ডাটা হারানোর সম্ভাবনা থাকে। অনেক ধাতব যন্ত্রপাতি থাকার ফলে ভারী হয়। ব্যবহারে অনেক সাবধানতা অবলম্বন করতে হয়। প্রতিস্থাপনে জায়গা বেশি লাগে।

অপরদিকে এসএসডি ডিজিটাল পদ্ধতিতে ইনটিগ্রেটেড সার্কিট (আইসি)’র মাধ্যমে ডাটা সংরক্ষণ করে। এর মধ্যে কোনো সচল যন্ত্রপাতি থাকে না। ফলে এসএসডি আকার যেমন ছোট হয় তেমনি ডাটা রিড-রাইট-এর জন্য বাড়িত যন্ত্রপাতির ওপর নির্ভরতা থাকে না। এতে স্পিড তুলনা মুলক অনেক বেশি হয়।

সাধারণ হার্ডড্রাইভ প্রতি সেকেন্ড ৫০-১২০ মেগাবাইট (MB) ডাটা রিড-রাইট করতে পারে। অপরদিকে এসএসডি প্রতি সেকেন্ড ২০০-৫০০ মেগাবাইট (MB) ডাটা রিড-রাইট করতে সক্ষম। তবে কিছু কিছু এসএসডি যেমন PCI-M.2 এসএসডি প্রতি সেকেন্ডে ১.৪ জিবি ডাটা রিড-রাইট করতে পারে।

তবে এসএসডির স্থায়িত্ব নিয়ে এখনও সঠিক ডাটা পাওয়া যায় না। তবে সাধারণত ধরা হয় হার্ডডিস্ক প্রায় দশ বছর পর্যন্ত ব্যবহার করা যায় এবং এসএসডি চার বছর। হার্ডডিস্কে ব্যাড সেক্টর কিংবা মটরে সমস্যা হলে রিপেয়ার করা যায়। এসএসডির চীপ নষ্ট হলে এটি সম্পূর্ণ নষ্ট হয়ে যায়। সবকিছু বিবেচনা করলে হার্ডডিস্কের স্থায়িত্ব SSD এর চেয়ে বেশি।

এই দুটোর যন্ত্রাংশের ধরন ভিন্ন হলেও সাধারণ কাজ এক। অর্থাৎ ডাটা সংরক্ষণ করা উভয়ের একমাত্র কাজ। দুটিরই সুবিধা এবং অসুবিধা রয়েছে। তাই এসএসডি ও হার্ডডিস্কের মধ্যে বিতর্ক থাকবেই। একচেটিয়া ভাবে কোনটিকেই বিজয়ী বলা যায় না। তারপরও গতির প্রশ্নে এসএসডিই শীর্ষে। তাই এসএসডি ব্যববহার করাই ভাল।

তবে যারা বেশি ডাটা নিয়ে কাজ করেন, ডাটা সংরক্ষণের জন্য বাড়তি একটি বা দুটি হার্ডডিস্ক ব্যবহার করতে পারেন। অর্থাৎ অপারেটিং সিস্টেমের (সি ড্রাইভ) জন্য শুধু এসএসডি ব্যবহার করবেন আর ডাটা রাখবেন হার্ডডিস্কে। তবে যারা গেইম খেলবেন কিংবা ভিডিও নিয়ে কাজ করবেন তারা অবশ্যই এসএসডি কিংবা m.2 এসএসডি ব্যবহার করবেন। এসএসডি কেনার সময় নকল থেকে সাবধান থাকবেন। বাজারে অনেক নকল বা কপি এসএসডি পাওয়া যায়। এতে আপনি সন্তোষজনক স্পিড পাবেন না।

সূত্র : ইন্টারনেট ও বিভিন্ন নিউজ মিডিয়া।

Share on Social Media